digital marketing er gurutto

ডিজিটাল মার্কেটিং এর গুরুত্ব

যদি কাউকে জিজ্ঞাসা করা হয় ডিজিটাল মার্কেটিং কি? ডিজিটাল মার্কেটিং এর গুরুত্ব তা হয়তো আমাদের অধিকংশই এটি সম্পর্কে বলতে পারবো না।

আর আমরা যারা কিছুটা জানি তারা হয়তো উত্তর দিব ডিজিটাল মার্কেটিং মূলত ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম এগুলোতে পোস্ট করা অথবা অ্যাড রান করাকে বলা হয়ে থাকে। কিন্তু ডিজিটাল মার্কেটিং কি শুধু পেস্ট তৈরি বা এন্ড রানের মধ্যেই সীমাবদ্ধ?

মার্কেটিং করার আরো অনেকগুলো মাধ্যম রয়েছে। যেমনঃ গুগল অথবা অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনে ওয়েবসাইট তৈরী করে সেখান থেকে মার্কেটিং করে প্রোডাক্ট সেল করা যায়।মার্কেটিং বিষয়টি অনেক আগে থেকেই হয়ে আসছে । অতীতে যেমন মানুষ তাদের পণ্য বা ব্যবসার জন্য মার্কেটিং করতো এখনো ঠিক তেমনি তাদের পণ্য বা সেবার মার্কেটিং করে থাকে । কিন্তু বর্তমানে শুধু মার্কেটিং করার পদ্ধতিটি একটু ডিজিটাল হয়ে গিয়েছে। এখন ট্রেডিশনাল মার্কেটিং এর চেয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন প্রয়োজন

আমাদের সকলের অফলাইন মার্কেটিং সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা আছে। কিন্তু এখনো এমন অনেকে আছে যাদের অনলাইন মার্কেটিং সম্পর্কে তেমন কোন ধারণা নেই। চলুন আমরা বর্তমান যুগের ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রয়োজনীয়তাগুলি জেনে আসি।

বর্তমানে বিশ্বে আনুমানিক 4.48 বিলিয়ন মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে থাকে। আর এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে।

সমগ্র বিশ্বে আনুমানিক 7.26 বিলিয়ন মানুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করে।

প্রায় 70% মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পোস্ট দেখে পণ্য কিনে।(সূত্র: retailtouchpoints.com)

81% ক্রেতা যেকোনো পণ্য কেনার আগে সেটি সম্পর্কে ইন্টারনেটে সার্চ দিয়ে যাচাই বাছাই করেন। (সূত্র:  GE Capital Retail Bank) । যারা রেফ্রিজারেটর, গাড়ি, ওয়াটার হিটার, গাড়ির পার্টস, সাইকেল, মাইক্রোওয়েভ ওভেন ইত্যাদি সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করে পণ্য নিয়ে গবেষণা করার মাধ্যমে পণ্য কিনে থাকে।

সহজে ও তাড়াতাড়ি ব্যবসার প্রচার

ডিজিটাল মার্কেটিং ব্যবহার করে অনলাইনে ক্রেতাদের উপস্থিতি গুলো কাজে লাগিয়ে খুব তাড়াতাড়ি ব্যবসার প্রচার করা যায় এই কৌশল ব্যবহারের ফলে  টাকা ও সময় উভয়ই সাশ্রয় হয়। যা ব্যবসায় অধিক মুনাফা অর্জনে সহায়তা করে। আর ডিজিটাল মার্কেটিং করলে আপনার ব্যবসার বিষয় সম্পর্কে একই টাইমে অনেক মানুষকে জানাতে পারবেন।

গ্রাহকের সাথে সম্পর্ক তৈরি

ক্রেতার সাথে সুসম্পর্ক তৈরীর সহজ একটি মাধ্যম হল ডিজিটাল মার্কেটিং। একজন ডিজিটাল মার্কেটার ব্যবসায়ীদের সাথে ক্রাতাদের মধ্যে অপূর্ব যোগাযোগের উপায় তৈরি করে দিয়েছে। যার ফলে তাদের মধ্যে সুসম্পর্ক তৈরি হয়। যদি একজন ক্রেতার সাথে ভালো সম্পর্ক তৈরে হয়ে যায় তাহলে সেই ক্রেতা দ্বিতীয়বার আপনার সেবা বা পণ্য নিতে আসবে।

অনলাইন বিক্রয়

যেহাতু ডিজিটাল মার্কেটিং একটি অনলাইন ভিত্তিক বেবসার মাধ্যম। আপনি যদি আপনার ব্যবসাকে অনলাইনের মাধ্যমে প্রচার করতে চান তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং আপনার জন্য খুবই জরুরি।

আয় বৃদ্ধি করে

ডিজিটাল মার্কেটিং মূলত দুইটি মাধ্যমে হয়ে থাকে পাইড মার্কেটিং এবং অরগানিক মার্কেটিং । এই  দুইটি মাধ্যম বেবহার করে আপনার পণ্য বিক্রি হয়ে থাকে। আর ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধমে পণের প্রচারে খরচ কম হওয়ার কারনে আপনার আয় বৃদ্ধি পায়।

অ্যাড ক্যাম্পেইন বা অ্যাডভার্টাইজমেন্ট ক্যাম্পেইন

অনলাইন মার্কেটিং এর একটি সুবিধা হল আপনি আপনার নিজের ইচ্ছামত ক্যাম্পেইন চালাতে পারবেন এবং সেটি আপনার চাহিদামত পরিবর্তন করতে পারবেন। এই এড ক্যাম্পেইন খুবই জনপ্রিয় আর প্রচলিত একটি ক্যাম্পেইন । কারণ এটির মাধ্যমে আপনি আপনার টার্গেটেড অডিয়েন্স এর মতামত মতামত এর উপর ভিত্তি করে সেই অনুযায়ী এড ক্যাম্পেইন চালাতে পারবেন এবং চ্যাম্পিয়ন গুলো বদলে করতে পারবেন।

এতে আপনি খুব সহজেই বুঝতে পারবেন আপনার অ্যাড বা বিজ্ঞাপন কথায় কথায় পরিবর্তন দরকার আর কথা দরকার নেই।

ব্র্যান্ড তৈরি

কোন একটি নির্দিষ্ট ব্র্যান্ড বা কোম্পানির তখনই তৈরি হয় যখন আপনার পণ্যের পরিষেবা অনুযায়ী ব্যবসার প্রচার পায়। ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি আপনার কোম্পানিতে খুব সহজে এবং খুব তাড়াতাড়ি একটা ব্র্যান্ডের জায়গায় নিয়ে যেতে পারবেন।

আপনি যদি আপনার ব্যবসায় স্বচ্ছতা বজায় রেখে কাস্টমারের চাহিদার সাথে তাল মিলিয়ে আপনার প্রোডাক্টের প্রয়োজনীয়তা মেটাতে পারেন। তাহলেই আপনার কোম্পানিটি ধিরে ধিরে একটি ব্র্যান্ডের পরিণত হতে সক্ষম ।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ কি?

এতক্ষণ তো আমরা ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে জানলাম ,এখন আকটু ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জানা যাক। তথ্য প্রযুক্তির অবদানে সারা পৃথিবীটাই মানুষের হাতের মুঠোয় চলে আসতে শুরু করেছে। সেই সময়টি আর বেশি দিন নয় , যখন মানুষ দোকানে বা বাজারে গিয়ে সময় নষ্ট করে পণ্য কেনা বন্ধ করে দিবে। সবাই অনলাইনে দোকানে বা বাজার করে নিবে। কারণ ক্রমবর্ধমান জীবনযাত্রার কারনে মানুষ বাজারে গিয়ে পণ্য যাচাই বাছাই করার থেকে অনলাইনে কিনতে বেশি আগ্রহী হচ্ছে।

আর এই অনলাইনের পণ্য কেনাকাটা বা বাজার ব্যবস্থাপনা সম্পূর্ণটাই ডিজিটাল মার্কেটিং এর উপর নির্ভরশীল। আর আপনি যদি এখনই নিজেকে ডিজিটাল মার্কেটিং, এ দক্ষ হিসাবে গড়ে তুলতে না পারেন তাহলে আপনি এই বাজার ব্যবস্থাপনায় নিজেকে টিকিয়ে রাখতে পারবেন না।

এইসব দেখলেই বুঝা যায় , বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা পৃথিবীতে দিন দিন কত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর ডিজিটাল মার্কেটিং, মার্কেটিং এর একটি আধুনিক সংস্করণ । দিন দিন যত ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়বে ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা ততই বৃদ্ধি পাবে।

শেষ কথা

আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা ডিজিটাল মার্কেটিং এর গুরুত্ব, প্রয়োজনীয়তা ও লাভ ইত্যাদি সম্পর্কে জেনেছি এবং এটি সম্পর্কে আলোচনা করেছি।

আশাকরি আমাদের এই আর্টিকেলটি আপনাদের পছন্দ হয়েছে এবং এখান থেকে কিছুটা হলেও ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে জানতে পেরেছেন ও শিখতে পেরেছেন।

আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পর্কে যদি আপনাদের কোন ধরনের প্রশ্ন বা পরামর্শ থেকে থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট করে অবশ্যই জানিয়ে দেবেন।

Default image
shipon al hasan
Articles: 10

One comment

Leave a Reply

%d bloggers like this: