digital marketing

ডিজিটাল মার্কেটিং এর পরিচিতি

বর্তমান সময়ে  আমরা প্রতিনিয়ত ডিজিটাল মার্কেটিং কথাটা  শুনে থাকি। কিন্তু ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয়টা আসলে কি ? বা ডিজিটাল মার্কেটিং এর গুরুত্ব কতটুকু তা আমরা ঠিক জানি না । বর্তমান যুগ ইন্টারনেটের যুগ । মানুষ তাদের যাবতীয় কাজ থাকে শুরু করে পণ্য কেনাকাটা বা মার্কেটিং সবকিছু ঘরে বসে খুব সহজে করে ফেলতে পারে। আধুনিক যুগের এই পণ্য কেনাকাটা এতো সহজ করে দিয়েছে ডিজিটাল মার্কেটিং।

ডিজিটাল মার্কেটিং কি ?

ডিজিটাল মার্কেটিং মানে ইন্টারনেট বা অনলাইনের মাধ্যমে পণ্য বা কোন সার্ভিসের বিজ্ঞাপন প্রচারকে বোঝায়। মার্কেটিং , পণ্যের প্রচারণা বা বিজ্ঞাপন যেটাই বলা হোক না কেন এটি অতীতে করা হতো মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে । কিন্তু সময়ের সাথে সাথে মার্কেটিং এর দিক থেকেও পরিবর্তন এসেছে । আজকাল, প্রায় প্রতিটি ছোটবড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তাদের প্রচারণার ক্ষেত্র হিসাবে ডিজিটাল মার্কেটিংকে বেছে নিয়েছে । কারণ এটির মাধ্যমে ট্রেডিশনাল মার্কেটিং থেকে অনেক কম খরচ ও কম সময়ে অনেক মানুষের কাছে পৌঁছানো যায়। আমরা অনেকে জানি না প্রমোশন কাকে বলে বা প্রমোশন কি ?

প্রমোশন তিন ধরনের হয়ে থাকেঃ

  1. ATL – Above The Line.
  2. BTL – Below The Line.
  3. TTL – Throw The Line.

 

  1. ATL – বা , “ above the line “ এটির মাধ্যমে কোন একটি বিজ্ঞাপন যাতে লাখো দর্শককে লক্ষ্য করে প্রচার করা হয় । এটি করা হয়ে থাকে টেলিভিশন(tv), রেডিও (radio), বিলবোর্ডের (Billboard) ইত্যাদির মাধ্যমে।
  • টেলিভিশন (tv): আঞ্চলিক বা জাতীয় পর্যায়েকে লক্ষ করে।
  • রেডিও (radio): নির্দিষ্ট একটি দেশ বা শহরকে নির্দেশ করে ।
  • বিলবোর্ডের (Billboard ): সংবাদপত্র, অনলাইন পত্রিকাক ইত্যাদি।

 

  1. BTL – “, বা “Below The Line”, সরাসরি ক্যাম্পেইনকে বোঝায় , নির্দিষ্ট কোন প্রতিষ্ঠান বা মানুষকে লক্ষ্য করে পণ্য প্রদর্শন করা হয়ে থাকে আর এটিকে BTL বলা হয়। যেমন , বাণিজ্যমেলায় ফ্রিতে মেগি নুডুলস খেতে দেওয়া।
  • আউটডোর বিজ্ঞাপন: বিলবোর্ড, ব্যানার, স্যান্ডউইচ বোর্ড ইত্যাদি।
  • সরাসরি মার্কেটিং: এসএমএস, ইমেল, সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট, ইত্যাদি।
  • স্পনসরশিপ: ইভেন্ট, প্রতিযোগিতা, ফ্রি পণের নমুনা প্রদর্শন।
  • ইন-স্টোর প্রোমোশন: ভিজ্যুয়াল মার্চেন্ডাইজিং, নমুনা, বিক্রয় প্রচার।

 

  1. TTL – “, বা ” throw the line “, এর মধ্যে “ATL” এবং “BTL” উভয়ই আছে। TTL মূলত ডিজিটালি মার্কেটিংকে বুঝায়।
  • ATL” এবং “BTL” উভয়ই এটির মধ্যে সংযুক্ত আছে।
  • ডিজিটাল মার্কেটিং: অনলাইন ব্যানার , সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট, ব্লগ আর্টিকেল।

 

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ধাপসমূহ

ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেকগুলো ক্ষেত্র রয়েছে। যেই ক্ষেত্রগুলো ব্যবহার করে ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন প্লাটফর্মে ডিজিটাল মার্কেটিং করা হয়ে থাকে। নিচে আটটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে। চলুন দেখে নেয়া যাক-

  • সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO)
  • সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (SEM)
  • সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং (SMM)
  • কনটেন্ট রাইটিং (content writing)
  • ইমেইল মার্কেটিং (email marketing)
  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং (affiliate marketing)
  • পে পার ক্লিক এডভার্টাইসিং (PPC)
  • কষ্ট পার একশন মার্কেটিং (CPA marketing)

 

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (Search Engine Optimization)

ডিজিটাল মার্কেটিং এর গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর মধ্যে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন হল একটি । সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কে সংক্ষেপে এসইও (SEO) বলা হয়।  সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ( SEO )

হল একটি দীর্ঘ মেয়াদি প্রক্রিয়া । (SEO) ব্যবহার করে কোন ওয়েবসাইট বা ওয়েবপৃষ্ঠাকে সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম দিকে আনতে সাহায্য করে।

 

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (Search Engine Marketing)

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (SMM) এমন একটি ডিজিটাল মার্কেটিং যার মাধ্যমে বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিনে পেইড প্রমোশন ব্যবহার করে ওয়েবসাইটের ভিজিটর বা সেল বাড়ানো পদ্ধতিকে বোঝানো হয়।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং (Social media marketing)

বর্তমান সময়ের মার্কেটিং এর খুব জনপ্রিয় একটি প্লাটফর্ম হল সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং (SMM)। বেশিরভাগ মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া বলতে ফেসবুককে বুঝে থাকে। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে Facebook, Twitter, LinkedIn, Pinterest, Instagram, you tube ইত্যাদিকে বুঝানো হয়। সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বলতে এই সোশ্যাল মিডিয়া গুলো ব্যবহার করে (product brand awareness) বা পণ্য কেনাবেচা করাকে বুঝায়।

কনটেন্ট রাইটিং (content writing)

সহজ ভাষায় বললে কোন কিছ লেখাকে  কনটেন্ট রাইটিং বলে। কনটেন্ট রাইটিং (content writing) হল এমন এক ধরনের লেখার পদ্ধতি যা কোন ওয়েবসাইট, পেজ, কোন পণ্য বা কোন বিষয়বস্তুকে বিস্তর ভাবে বিবরণ করাকে বুঝায়। কন্টেন্ট রাইটিং (content writing) এর বাংলা হল বিষয়বস্তু লেখা। কনটেন্ট রাইটিংকে অনেকে আর্টিকেল রাইটিং বলে থাকে।

ইমেইল মার্কেটিং (email marketing) 

ইমেইলের মাধ্যমে কোন প্রোডাক্ট বা সার্ভিস গ্রাহকের কাছে প্রচার করার মাধ্যমকে ইমেইল মার্কেটিং (email marketing) বলা হয়। ইমেইল মার্কেটিং ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি অংশ। নির্দিষ্ট কাস্টমারকে টার্গেট করে তাদের ইমেইলে (email) পণ্যের পণ্য সম্পর্কিত তথ্য জানিয়ে কিংবা ব্যবসা সম্পর্কে বিভিন্ন অফার পাঠিয়ে মার্কেটিং করা ইমেইল মার্কেটিং (email marketing) করা হয়।

 অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং (affiliate marketing)

কোন একটি কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানের প্রোডাক্ট বা সার্ভিস নিজের ওয়েবসাইট, ব্লগ, সোশ্যাল মিডিয়া, পেজ ইত্যাদি।  ব্যবহার করে প্রোডাক্ট বা সার্ভিস বিক্রি করার মাধ্যমে একজন মার্কেটার যে নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন পেয়ে থাকে তাকে আফিলিয়েট মারকেটিং বলা হয়।

পে পার ক্লিক এডভার্টাইসিং (Per Per Click)

PPC মানে হচ্ছে Per Per Click ।  একটি প্রতিষ্ঠান তোর অনলাইন বিজ্ঞাপনের জন্য প্রতি ক্লিকের জন্য ব্যবহারকারীকে অর্থ প্রদান করে তাকে পে পার ক্লিক বা (pay-per-click) বলে। এ ধরনের পেইড অ্যাড তখনই আসে যখন কেউ গুগল অথবা অন্য কোন সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার কোন পণ্য বা কোনো কিছু খুঁজে থাকে।

কষ্ট পার একশন মার্কেটিং (CPA marketing)

CPA এর পূর্ণরূপ Cost Per Action, মার্কেটিং শব্দের অর্থ প্রচারণা । সিপিএ মার্কেটিং কিছুটা এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মত। আমরা যখন কোন প্রোডাক্ট এর লিংক কোথাও শেয়ার বা প্রচার করি এবং সেই লিঙ্কে ক্লিক করে কোন প্রোডাক্ট যদি কেউ কিনে থাকে তাহলে সেখান থেকে যে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন পাওয়া যায় তাকে সিপিএ মার্কেটিং বলে।

ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যারিয়ার হিসেবে কেমন?

ডিজিটাল মার্কেটিং এমন একটি সেক্টর যেখানে প্রযুক্তি ও সৃজনশীলতা উভয়ই রয়েছে। এই সেক্টরে কাজের পরিধি অনেক বড়। যে কেউ চাইলে এই সেক্টরে তার ক্যারিয়ার তৈরি করতে পারবে। ডিজিটাল মার্কেটিং শিখে আপনি যেমন ঘরে বসেই উপার্জন করতে পারবেন, ঠিক তেমনি চাকরির বাজারে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

আরেকটি জিনিস জানিয়ে রাখা ভাল ডিজিটাল মার্কেটিং এর একক কোন ক্ষেত্র বা শাখা নেই। এর ভিতর অনেকগুলো ভাগ রয়েছে। আর সেগুলো সম্পর্কের উপর আলোচনা করা হয়েছে। যার একটি ভালো করে শিখতে পারলে আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং এর সেক্টরে অনেক ভালো কিছু করতে পারবেন।

মার্কেটিং বিষয়টি একটি চলমান প্রক্রিয়া। আর মার্কেটিং ছাড়া কোনো পণ্য বেশিদিন বাজারের টিকিয়ে রাখা যায় না। তাই কেউ যদি এটিকে ক্যারিয়ার হিসেবে বেছে নেয় তাহলে তার সিদ্ধান্তটি একদমই ভুল কোন সিদ্ধান্ত হবে না।

Default image
shipon al hasan
Articles: 10

Leave a Reply